সাক্ষাত্কার নারী

রিমঝিম আহমেদ

ফুল ছিঁড়তে ভালো লাগে না, ফুলের দিকে তাকিয়ে থাকতে ভালো লাগে

রিমঝিম আহমেদ

এপার থেকে ওপারে যেতে হলে সাঁকো তো পার হতে হবেই। ভয় নিয়ে, সময় নিয়ে হলেও। জীবনে নানারকম ছড়াই উৎরাই থাকে। সাঁকো পার হবার মতো ভীতিকর পরিস্থিতিতে এসব মোকাবেলা করে মানুষ। ....

ক্যাথরিন মাসুদ

চলচ্চিত্র নির্মাতা হতে হলে যেমন প্রতিভা থাকতে হয় তেমন সাহস থাকতে হয়

ক্যাথরিন মাসুদ

বাংলাদেশে স্কিল ডেভেলপমেন্টের সুযোগের অভাব ছিল সবসময়, এমনকি এই যে সিনেমার ইতিহাস জানা, আমরা কোথায় আছি। আমরা কতটুকুর অংশ এটুকু জানার দরকার আছে। বাইরের দেশের সাথে তুলনা করে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নিয়ে পড়াশোনা এসবও দরকারী। ....

শাহীন সামাদ

মিডিয়ায় নিজেকে দেখানোর লোভ সংবরণ করতে পারলে একাডেমিক শিক্ষা আরও সুফল বয়ে আনবেনা

শাহীন সামাদ

ফিউশনে আপত্তি নেই কিন্তু কথা-সুর ঠিক থাকতে হবে। যে ইনস্ট্রুমেন্টই ব্যবহার কর যেভাবেই কর নজরুল বা রবীন্দ্রনাথ যে কথা আর সুর লিখে রেখে গেছেন তা বদলে ফেলবে ফিউশনের দোহাই দিয়ে তা তো হয় না। ....

তানিয়া জাবেদ

'আই হেইট পলিটিক্স' বলে ছাত্র-রাজনীতি থেকে ছাত্রদের দূরে থাকার সময় শেষ

তানিয়া জাবেদ

অসম্পূর্ণ মানুষ হয়ে আছি। পরিণত মানুষ হবো। তারপর হাওয়া। যেহেতু কেউ বলেছিলো, হাওয়ার আছে গগনব্যাপী ডানা। ....

নীলাঞ্জনা অদিতি

এখনকার কবিতা পড়ে মনে হয় অনেক ধরনের কবিতা লেখা হচ্ছে

নীলাঞ্জনা অদিতি

এখনকার কবিতা পড়ে মনে হয় অনেক ধরনের কবিতা লেখা হচ্ছে। নানা স্টাইলে। এইটা ভালো। যে কোনো সৃষ্টিশীল মাধ্যমে পরিবর্তন ভাংচুর জরুরী। একই টাইপ সব সময় ভালো না। ....

অ্যালিস ওয়াকার

আমি নিজেকে মানবতার প্রতি সমর্পিত মনে করি

অ্যালিস ওয়াকার

আমি অনুভব করেছিলাম আমার সত্যিকারের দায়িত্ব হলো ফিরে গিয়ে সেই মানুষদের সাহায্য করা যারা সত্যি আমার পরিবারের মতো। কাজেই আমি আমার ভিতরকার কথা শুনলাম। আর মিসিসিপি ফিরে গেলাম। ....

অরুন্ধতী রায়

সম্ভবত আমিই ভারতের একমাত্র মেয়ে, মা যাকে বলতো, ‘আর যাই করো না কেনো কখনো বিয়ে করো না’

অরুন্ধতী রায়

সম্ভবত আমিই ভারতের একমাত্র মেয়ে, মা যাকে বলতো, ‘আর যাই করো না কেনো কখনো বিয়ে করো না।’ বিয়ের আনুষ্ঠানে কনে দেখলে আমার গায়ে যেনো ফুসকুড়ি উঠতো। এদেরকে আমার প্রায় পৈশাচিক মনে হতো। অলংকারসজ্জিত এই প্রাণিটিকে আমার জ্বলন্ত কাঠের মতো ভয়াবহ লাগতো যেমনটা আমি আমার উপন্যাস ‘দ্য গড অব স্মল থিংস’-এ লিখেছিলাম। ....

অরুন্ধতী রায়

তাদের যুদ্ধটা চৈতন্যের যুদ্ধ, সভ্যতাকে পুনর্বার সংজ্ঞায়িত করার যুদ্ধ

অরুন্ধতী রায়

ভারতের কোটি কোটি আভ্যন্তরীণ ছিন্নমূল মানুষ আছেন। আর এখন তারা বিপদসীমার মধ্যে থেকে ফিরতি লড়াই লড়ছেন। হাজারে হাজারে নিহত ও বন্দী হচ্ছেন। তাদের যুদ্ধটা চৈতন্যের যুদ্ধ, সভ্যতাকে পুনর্বার সংজ্ঞায়িত করার যুদ্ধ, আনন্দের অর্থ খোঁজার যুদ্ধ, পূর্ণতার অর্থ খোঁজার যুদ্ধ। ....

শাহীন আখতার

ভাবি, যারা বাঙলা পড়তে জানেন, সবাই আমার লেখা পড়বেন

শাহীন আখতার

আমার লেখার কক্ষটি বেশ খোলামেলা। কক্ষসংলগ্ন বারান্দা আছে। বড় দুটিজানালা আছে। তবে কম্পিউটারের সামনে বসলে বাইরের দৃশ্য অদৃশ্য হয়ে যায়। ....

মিয়া খলিফা

দাঁত মাজার আগে আমি কোনো কাজই করতে পারি না

মিয়া খলিফা

শিক্ষাটাই আমার কাছে সব চাইতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অন্তত স্নাতক হতে হবে। স্নাতক নয় এমন কারো সঙ্গে আমি শুতে যাবো না। ....

সিমন দ্য বোভোয়ার

সার্ত্রে ভেবেছিলো জীবনটা শব্দের ফাঁদে ধরা পড়বে, আর আমি ভেবেছি শব্দেরা জীবন নয়, পুনর্জীবন

সিমন দ্য বোভোয়ার

ভালোবাসা খুব দারুণ অধিকার। সত্যিকারের ভালোবাসা, যা খুব দুর্লভ, নারী পুরুষের জীবনকে ঋদ্ধ করে, যারা অভিজ্ঞতাটা পায়। ....

ফারিয়া তাবাসসুম

আমি যে একজন নারী, সেটা এই পিতৃতান্ত্রিক সমাজে বড় হতে হতেই জেনেছি

ফারিয়া তাবাসসুম

জন্মাবার সময় আমি জানতাম না আমি মেয়ে না ছেলে। আমি একজন মানুষ এই বোধটা হয়তো জন্মাবার আগেই আমার মধ্যে ছিলো বা থাকার কথা। আর আমি যে একজন নারী, সেটা এই পিতৃতান্ত্রিক সমাজে বড় হতে হতেই জেনেছি। ফেমিনিজম বিষয়টাও আমাকে সেভাবেই বুঝতে হয়েছে। ....

মুর্শিদা জামান

এক ক্লাসমেট বেঞ্চে কলম দিয়ে আমার নামের পাশে লিখেছিলো ‘সাহিত্যিক’

মুর্শিদা জামান

‘রাইফেল, রোটি, আওরাত’ ছিল বাবার পড়ার বই। সে বইটি পড়ে আম্মু কাঁদতেন। যেহেতু আমি ছোট তাই ধরা নিষেধ। একদিন চুপ করে বইটি খুললাম। খুলতেই চমৎকার একজন মানুষের ছবি পেলাম তাতে। সে সময় লেখার চেয়ে ছবি দেখতাম বেশি বলে মন দিয়ে ছবিটি দেখলাম। খুব মগ্ন হয়ে বসে লিখছেন লেখক। শাদাকালো ঐ ছবিটির মানুষটি নাকি ঐ লেখার ভঙ্ ....

হিমালি গোলে সংগ্রামী

পুরনো রাষ্ট্রের ধ্বংসের মাধ্যমেই আমাকে ধর্ষণ ও পিতৃহত্যার প্রতিশোধ বাস্তবায়িত হবে

হিমালি গোলে সংগ্রামী

২০০০ সালের ১০ ও ১১ মে মাইনা পোখারি পুলিশ ফাঁড়ি থেকে আমাদের গ্রামে পুলিশ আসে। তারা আমার বাবা, মা, বড় বোন এবং চাচা সকলকে পিটিয়ে সংজ্ঞাহীন ক’রে ফেলেছিল। আমাকেও পিটিয়ে আমার চাচার বাড়িতে তারা আমাকে ধর্ষণ করতে চেষ্টা করেছিল। প্রথমে আমি তীব্র আর্তনাদ করেছিলাম, বাধা দিয়েছিলাম, কিন্তু তারা আমার মুখমণ্ডলে ও ম ....

লিডিয়া ডেভিস

আমি সহজভাবে কথা বলতে পছন্দ করি, পাঠক ও নিজের মধ্যে কোনো দেয়াল না রেখে

লিডিয়া ডেভিস

একজন মানুষের জীবনে চারটা মূল জিনিসের চাহিদায় সব সময় ভারসাম্য রক্ষা করতে দেখেছি : জীবিকা, পরিবার দেখাশোনা, শিল্পের সাধনা, অথবা বন্ধুদের সঙ্গে সামাজিক জীবন রক্ষা/ অথবা কারো সমাজে সক্রিয় জীবন। যখন আমার বাচ্চারা ছোট ছিল, আমি আমার সমাজে কম সক্রিয় ছিলাম। ....