মৃত্তিকা চাকমা

মৃত্তিকা চাকমার জন্ম ১২ জানুয়ারি ১৯৫৮ খ্রিষ্টাব্দে রাংগামাটি জেলার তৎকালীন বন্দুকভাঙ্গা ইউনিয়নের কাবত্যাদোরের মুগছড়ি নামক গ্রামে । কাপ্তাই বাধেঁর কারনে পানি বেড়ে গিয়ে তাঁেদর গ্রামটি কর্নফুলি নদীতে হারিয়ে যায়। সেই স্মৃতি তিনি এখনও বয়ে চলেছেন। পরে তাঁেদর পরিবার খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলার লোগাং গ্রামে বসতি করে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে বি.এ এবং এম. এ করার পর রাংগামাটির মোনঘর আবাসিক উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা শুরু করেন এবং অদ্যাবদি সেখানে কর্মরত আছেন। তিনি একাধারে কবি, সাহিত্যিক, নাট্যকার ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনকর্মী। পার্বত্য চট্টগ্রামের জুম্ম ভাষা, সাহিত্য ও সংস্কৃতি নিয়ে কাজ করা অন্যতম সংগঠন জুম ঈসথেটিকস কাউন্সিল(জাক)-এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। তাঁর কাব্যগ্রন্থসমূহের মধ্যে দিকবন সেরেত্তুন, মন পরানী, এখনো পাহাড় কাঁদে উল্লেখযোগ্য। দেবঙসি আহধর কালা ছাবা, গোঝেন, হককানির ধনপানা, বান -সহ অসংখ্য বিখ্যাত নাটক তাঁর হাতে সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়াও চাকমা ভাষা ও সাহিত্যের তিনি একজন অন্যতম গবেষক। তাঁর কর্মস্থল মোনঘর আবাসিক উচ্চ বিদ্যালয় বার্ষিকী, বিভিন্ন স্মারকগ্রন্থ, জাকের নিয়মিত প্রকাশনাসহ বিভিন্ন সাহিত্য পত্রিকা তিনি সম্পাদনা করেছেন। তিনি তাঁর কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ অসংখ্য সাহিত্য পুরস্কার এবং সম্মাননা পেয়েছেন